রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সম্মিলিত পদক্ষেপের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ২৪-০৯-২০২২ ০৩:৪৫

আপডেট: ২৪-০৯-২০২২ ২২:৪২

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিশ্ব এখন যুদ্ধ ও মহামারীসহ বহুমুখী সংকটে আক্রান্ত উলে­খ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এসব মোকাবেলায় প্রয়োজন বৈশ্বিক সংহতি। জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে দেয়া ভাষণে একথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগামি প্রজন্মের জন্য সুন্দর পৃথিবী রেখে যাওয়া সবার দায়িত্ব। মিয়ানমারের নাগরিক রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশের নানা সমস্যা হচ্ছে জানিয়ে, তাদের প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ ও বিশ্ব নেতাদের পদক্ষেপ চাইলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

জাতিসংঘের ৭৭তম সাধারণ অধিবেশনে বক্তব্য দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম ঘোষণার পর করতালি দিয়ে স্বাগত জানান বিশ্ব নেতারা। অভিবাদনের জবাব দিয়ে মঞ্চে ওঠেন প্রধানমন্ত্রী । বিশ্ব নেতাদের সামনে পিতার ন্যায় মাতৃভাষা বাংলায় বক্তব্য রাখেন তিনি। এ নিয়ে মোট ১৯ বার বিশ্বের সর্বোচ্চ ফোরাম জাতিসংঘে বক্তব্য রাখলেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যে বিশ্ব অর্থনীতি, করোনা অতিমারীর বিরুপ প্রভাব, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সংকট, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব এবং বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের কারণে সৃষ্ট সমস্যাসহ বৈশ্বিক আরো নানা বিষয় তুলে ধরেন। পাশাপাশি জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমন এবং মানবাধিকার সংরক্ষণ ও উন্নয়নে তার সরকারের অঙ্গিকারের কথা পুণর্ব্যক্ত করেন। 

করোনা অতিমারীর ধকল কাটিয়ে বিশ্ব যখন ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, তখন রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ আবার গোটা বিশ্বে নতুন সংকট তৈরী করছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। 

এসময় রোহিঙ্গা সংকটের কথা বিশ্ব নেতাদের সামনে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের উদ্যোগের পরও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেন তিনি। বলেন, তাদের দীর্ঘদিন আশ্রয় দেয়ার কারণে বাংলাদেশে  আর্থ, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংকট দেখা দিয়েছে। হুমকির মুখে এই অঞ্চলের নিরাপত্তা।

নিরাপদ বিশ্ব গড়তে যুদ্ধ ও সংঘাত বন্ধের জন্য বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আগামি প্রজন্মের জন্য সুন্দর ও নিরাপদ পৃথিবী গড়া সকলের দায়িত্ব। 

প্রতিশোধ পরায়ন না হয়ে শান্তির জন্য বিশ্ব নেতাদের পরস্পরের প্রতি বন্ধুত্বের হাত বাড়ানোর আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

MHS/shimul