অসংক্রামক রোগে ভুগবে বিশ্বের ৫০ কোটি মানুষ

প্রকাশিত: ০১-১১-২০২২ ১৫:১৮

আপডেট: ০১-১১-২০২২ ১৫:৫১

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিয়মিত কায়িক শ্রম ও শারীরিক ব্যায়াম না করায় ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বে নতুন করে পঞ্চাশ কোটি মানুষ অসংক্রামক রোগ ও মানসিক রোগে আক্রান্ত হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে বলেন, এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে উন্নয়নশীল দেশের মানুষেরা। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিশ্ব নেতাদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার ওপর জোর দিয়েছেন ডব্লিউএইচও প্রধান।

বিশ্বের ১৯৪টি দেশের তথ্য-উপাত্ত পরীক্ষা করে সম্প্রতি বৈশ্বিক শারীরিক ক্রিয়াকলাপ রিপোর্ট-২০২২ প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডব্লিউএইচও। প্রতিবেদনটিতে দেখা গেছে, শারীরিক কসরতের অনাগ্রহের কারণে বিশ্বে অনেক মানুষ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

নিয়মিত শারীরিক ব্যায়াম না করায় ২০৩০ সালের মধ্যে নতুন করে টাইপ-২ ডায়বেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, ক্যান্সার ও স্মৃতিভ্রমের মতো রোগে আক্রান্ত হবে বিশ্বের ৫০ কোটি মানুষ। এরমধ্যে উন্নয়নশীল দেশগুলোর শ্রমবিমুখ ও ব্যায়ামে অনাগ্রহী মানুষেরা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে বলে সতর্ক করেছে ডবিøউএইচও।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৪টি দেশের মধ্যে অর্ধেকেরও কম দেশে শারীরিক কার্যকলাপের ওপর জাতীয় নীতি রয়েছে। কিন্তু এই নীতি কার্যকর ছিল ৪০ শতাংশেরও কম দেশে। তাদের অভিযোগ, নানা সুবিধা থাকা সত্তে¡ও ব্যায়ামকে উৎসাহিত করতে ধীর গতি দেখাচ্ছে বিশ্ব নেতারা। 

এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় হাঁটা, সাইকেল চালানো, খেলাধূলাসহ অন্যান্য শারীরিক ক্রিয়াকলাপের মাধ্যমে গণসচেতনতা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন, ডব্লিউএইচও প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসাস। সেইসাথে ব্যায়ামে সকল বয়সের মানুষের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার কথাও বলেন তিনি।

aleya/sharif