নিরাপত্তা ঝুঁকিতে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ

প্রকাশিত: ০২-১১-২০২২ ১৮:১৮

আপডেট: ০২-১১-২০২২ ১৮:১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুদ্ধ ও সন্ত্রাসবাদের কারণে নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ। এর মধ্যে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আফগানিস্তান। নিরাপত্তা হুমকির সূচকের ভিত্তিতে আন্তর্জাতিক সংস্থা দ্যা গ্লোবাল ইকোনোমির করা তালিকায় এসব তথ্য উঠে এসেছে। তালিকায় রয়েছে ১৭৭ টি দেশের নাম। জঙ্গি ও আঞ্চলিক কিছু কারণে নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে বাংলাদেশেরও। রয়েছে তালিকায় ৪১ তম স্থানে। যা অনেকটা নিরাপদ বলেই ধারণা করা হচ্ছে। 

আত্মঘাতী হামলা, বিদ্রোহ, নাগরিক স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ ও অর্থনৈতিক সংকটসহ গৃহযুদ্ধের কারণে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ ইতোমধ্যে নিরাপত্তা হুমকিতে রয়েছে। এতে প্রতিনিয়তই সেসব দেশের নাগরিকরা মুখোমুখি হচ্ছেন অনিশ্চিত জীবন যাত্রার। সম্প্রতি ২০০৭ থেকে ২০২২ সালের তথ্য-উপাত্তের ওপর ভিত্তিতে নিরাপত্তা হুমকিসূচক সিকিউরিটি থ্রেটস ইনডেক্স এর তালিকা প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক সংস্থা দ্যা গ্লোবাল ইকোনোমি। 

সংস্থাটি জানায়, বিশ্বে নিরাপত্তা হুমকির বিবেচনায় শীর্ষ ১০টি দেশের তালিকায় প্রথমেই রয়েছে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তান। গত চার দশক ধরে যুদ্ধের কারণে দেশটি থেকে বাস্তুচ্যুত হয়েছে প্রায় ২৬ লাখ অধিবাসী। আর ২০২১ সালে তালেবান গোষ্ঠী ক্ষমতায় আসার পর একের পর এক বিধি নিষেধ আরোপের ফলে নিরাপত্তা জনিত হুমকি আরও বেড়েছে। তারপরেই রয়েছে মালি, সিরিয়া, ফিলিপিন্স ও সোমালিয়া। আর দশম স্থানে রয়েছে নাইজেরিয়া। 

এদিকে, এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে আফগানিস্তান ছাড়াও উঠে এসে থাইল্যান্ড, পাকিস্তান, ইরাক, উত্তর কোরিয়া ও লেবাননের নাম। তবে এই দেশগুলোর মধ্যে ৪১ তম অবস্থান নিয়ে অনেকটা ভালো অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। এছাড়া নিরাপত্তা হুমকিতে রয়েছে রাশিয়া, তুরস্ক, ইউক্রেন, বেলারুশ, ইতালি ও মলদোভা। একই হুমকিতে রয়েছে মেক্সিকো, ভেনেজুয়েলা, ঘানা, কলোম্বিয়া ও হন্ডুরাসও ।

১৭৭ টি দেশের জনসাধারণের জীবনের নিরাপত্তা ঝুঁকির ভিত্তিতে করা এই তালিকায় সর্বশেষ অর্থাৎ উন্নত অবস্থানে রয়েছে পর্তুগাল ও স্লোভোনিয়া। 

 

 

hasna/shimul