ইউক্রেনে ‘ডার্টি বোমা’ তৈরির প্রমাণ মেলেনি

প্রকাশিত: ০৪-১১-২০২২ ১৬:৩৫

আপডেট: ০৪-১১-২০২২ ১৬:৩৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউক্রেনের একাধিক স্থানে পারমাণবিক তেজস্ক্রিয়তা সম্পন্ন ‘ডার্টি বোমা’ তৈরির কোনো প্রমাণ পায়নি জাতিসংঘ। রাশিয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইউক্রেনের ওইসব এলাকায় তদন্তের পর ‘বোমা’ তৈরির আলামত পায়নি  জাতিসংঘের পারমাণবিক শক্তি সংস্থা- আইএইএ। এদিকে, রুশ অধিকৃত খেরসন অঞ্চলের ডিনিপ্রো নদীর পশ্চিমতীর থেকে সেনা প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছে রাশিয়া। তবে রুশ বাহিনীর খেরসন ছাড়ার ঘোষণাটি ‘নতুন ফাঁদ’ হতে পারে বলে মনে করছে ইউক্রেন।

গত ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চলে সেনা অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। অভিযান শুরুর পর থেকেই কিয়েভের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খেরসনের দখল নিয়েছে মস্কো। তবে স¤প্রতি কিয়েভের জোরালো প্রতিরোধের মুখে অঞ্চলটিতে কোনঠাসা হয়ে পড়েছে রুশ বাহিনী। রাশিয়ার অধিকৃত একমাত্র প্রাদেশিক রাজধানী থেকে সেনা প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছে মস্কো। তবে একে রাশিয়ার যুদ্ধকৌশল বলে মনে করছে ইউক্রেন। এটি রুশ বাহিনীর ‘মিথ্যা ফাঁদ’ হতে পারে বলে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিচ্ছে কিয়েভ।   

এদিকে, জাতীয় গ্রিড থেকে জাপোরিঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনায় ইউক্রেনজুড়ে বিদ্যুৎ ও পানি সংকট বেড়েছে। অন্ধকারে ডুবে আছে দেশটির বিভিন্ন অঞ্চল। যুদ্ধক্ষেত্রে উল্লে­খযোগ্য অগ্রগতি না পেয়ে রাশিয়া ইউক্রেনের অবকাঠামো ও বিদ্যুৎক্ষেত্রগুলো ধ্বংস করছে জানিয়ে ক্রেমলিনকে শক্তি সন্ত্রাস বলে উল্লে­খ করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।  

অন্যদিকে, রাশিয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে ইউক্রেনের তিনটি স্থানে তদন্ত করে ‘ডার্টি বোমা’ তৈরির কোনো প্রমাণ না পায়নি জাতিসংঘ। সংশ্লিষ্ট স্থানগুলোতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে কোনো পারমাণবিক কার্যকলাপ চালানোর আলামত পাওয়া যায়নি বলে বিবৃতি দিয়েছে পারমাণবিক শক্তি সংস্থা- আইএইএ। এরআগে ইউক্রেনে অতি আণুবিক্ষণিক জীবাণু অস্ত্রের উন্নয়নে যুক্তরাষ্ট্র জড়িত থাকার অভিযোগের তদন্ত প্রস্তাবও প্রত্যাখ্যাত হয় জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে।

shamima/sharif