মনোনয়ন দৌড়ে আ. লীগের প্রায় ২ হাজার নেতা

প্রকাশিত: ০৮-১১-২০২২ ১৪:২৪

আপডেট: ০৮-১১-২০২২ ১৫:৩৩

পার্থ রহমান: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এখনও বছর দেড়েক বাকি থাকলেও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে এখনই দুই হাজারেরও বেশি নেতা মাঠে সরব হয়েছেন। দলীয় কর্মসূচীতে অংশ নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের আস্থা অর্জনের চেষ্টা করছেন তারা। আবার অনেকে দৌঁড় ঝাপ শুরু করেছেন দলের নীতি-নির্ধারণী মহলে। নির্বাচনের সময় আরো এগিয়ে এলে মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা কয়েকগুণ বাড়তে পারে। তবে মনোনয়ন পাওয়ার এই প্রতিযোগিতা স্বাভাবিক বলে মনে করেন দলের নীতি-নির্ধারণী মহল।

স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু কওে জাতীয় সংসদেও উপনির্বাচন- সবখানেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা বহুগুন বেড়েছে। ঢাকা-১৪ সংসদীয় আসনের সদস্য আসলামুল হকের মৃত্যুর পর গত বছর এই আসনের উপনির্বাচনে দলীয় সমর্থন পেতে ৬৪জন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনেছিলেন। সম্প্রতি সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর মৃত্যুর পর শুন্য হওয়া ফরিদপুর ২আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কেনেন ১৭ জন।

দেশের আট বিভাগের আটটি সংসদীয় আসনে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, প্রতি আসনেই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে তৎপরতা চালাচ্ছে অন্তত ৭ থেকে ১০জন করে। ৩০০টি আসন বিবেচনায় এখন আওয়ামী লীগের প্রায় ৩ হাজারেরও বেশী প্রার্থী মাঠে সরব।

আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ফারুক খান জানান, নির্বাচনের দিন-ক্ষণ চূড়ান্ত হলে মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়াতে পারে বলে মনে করছেন তারা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনেছিলেন সাড়ে তিন হাজারের বেশী নেতাকর্মী।

আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য আব্দুররাজ্জাক জানান,  মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা বেশী হলেও এনিয়ে দলে কোনো সমস্যা দেখছেন না কেন্দ্রীয় নেতারা। মনোনয়ন পেতে প্রার্থীর যোগ্যতাকেই সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হবে বলে জানান আওয়ামী লীগের নীতি নির্ধারনী মহল।

MRP/sharif