ভৈরব স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্যসেবা বিঘ্নিত

প্রকাশিত: ০৯-১১-২০২২ ০৮:২৩

আপডেট: ০৯-১১-২০২২ ০৮:৫৫

ভৈরব সংবাদদাতা: কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক ও জনবল সংকটে স্বাস্থ্য সেবা বিঘ্নিত হচ্ছে। অল্প সংখ্যক জনবল নিয়ে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসক এবং নার্সরাও। ভোগান্তি হচ্ছে রোগী ও স্বজনদের। সেবা না পেয়ে অনেকেই বাধ্য হচ্ছে অতিরিক্ত খরচে ক্লিনিক ও বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে। 

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১৯৬৮ সালে চালু হয় ১০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। এরপর কয়েক দফা শয্যা সংখ্যা বাড়িয়ে ১০০ শয্যায় উন্নিত হলেও নতুন করে জনবল নিয়োগ করা হয়নি। প্রতিদিন হাসপাতালটিতে গড়ে ৬শ’ থেকে ৭শ’ রোগী বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিচ্ছে। আর ভর্তি থাকছে ৫০ থেকে ৬০জন রোগী। 

হাসপাতালটিতে ২২ জন চিকিৎসক থাকার কথা থাকলেও ১৬ জন চিকিৎসক দিয়ে চলছে সেবা। সার্জারি, চক্ষু ও মেডিসিনসহ গুরুত্বপূর্ণ ৬টি পদে চিকিৎসক না থাকায় রোগীরা কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। বাধ্য হয়ে অনেকে যাচ্ছেন ক্লিনিক ও বেসরকারি হাসপাতালে। 

শুধু রোগী কিংবা স্বজনরাই নয় জনবল সংকটে কাজের বাড়তি বোঝায় হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরাও। সংকটের কথা স্বীকার করে জেলা সিভিল সার্জন সাইফুল ইসলাম জানালেন, সমস্যা সমাধানে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

ভৈরবের বিপুল জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে দ্রুত জনবল নিয়োগ দিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে আরও কার্যকর করে তোলার দাবি স্থানীয়দের।

Priyonty/sharif