দুর্ভোগের শেষ নেই পূর্ব জুরাইনবাসীর

প্রকাশিত: ১৭-১১-২০২২ ১৪:১১

আপডেট: ১৭-১১-২০২২ ১৫:০০

ফাহিম মোনায়েম : কষ্ট আর দুর্ভোগের যেন শেষ নেই পূর্ব জুরাইনবাসীর। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫২ ও ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন পূর্ব জুরাইনের মেডিকেল রোডের বেহাল দশা দীর্ঘদিন ধরে। ভাঙাচোরা রাস্তা আর জলাবদ্ধতা সেখানকার নিত্যদিনের চিত্র। বর্ষা কিংবা শুকনো মৌসুম, সবসময়ই পানিতে তলিয়ে থাকে সড়কটি। দুর্গন্ধের মধ্যেও নোংরা পানি মাড়িয়েই চলাচল করতে হয় স্থানীয়দের। এমন অবস্থা থেকে পরিত্রাণ চায় তারা।

শীত-গ্রীষ্ম কিংবা বর্ষা-- পূর্ব জুরাইনের মেডিকেল রোডের এমন অবস্থা একযুগ ধরে একই রকম। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫২ ও ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন হলেও পূর্ব জুরাইনের মেডিকেল সড়কের এমন বেহাল অবস্থা দেখার জন্য যেন কেউ নেই, নির্বিকার কর্তৃপক্ষ।

সড়কটির পাশে রয়েছে হাসপাতাল, দোকানপাট, আবাসিক ভবন, স্কুল, মাদ্রাসা ও মসজিদ। প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে চলাচলকারীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। অনেকেই দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। 

পূর্ব জুরাইন এলাকার কয়েক লাখ মানুষের পয়ঃনিস্কাশনের জন্য নেই আলাদা কোন ড্রেন। বর্ষার পানি অপসারণের ড্রেন দিয়েই পয়ঃবর্জ্য মিশ্রিত পানি যাচ্ছে। ড্রেনের ধারণ ক্ষমতায় না কুলানোয় ও নিয়মিত পরিস্কার না করায় সারাবছর পূর্ব জুরাইনের ২ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সড়কটির অধিকাংশ স্থান পানিতে তলিয়ে থাকে। নিয়মিত হোল্ডিং ট্যাক্স পরিশোধ করলেও ভাঙাচোরা রাস্তা আর জলাবদ্ধতা এই এলাকার বাসিন্দাদের নিত্যসঙ্গী।

দীর্ঘদিনের এই নাগরিক সমস্যার সমাধান করতে না পারার দায় স্বীকার করলেন স্থানীয় কাউন্সিলর  মো. মীর হোসেন মীরু। তিনি জানালেন, সড়কটি সংস্কারের জন্য অর্থ বরাদ্দ হয়েছে। টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হলে খুব শিগগিরই কাজ শুরু করা হবে। 

দীর্ঘদিন সমস্যায় জর্জরিত এলাকাটি পরিদর্শনে গিয়ে সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন স্বয়ং মেয়র। দ্রুত তার বাস্তবায়ন চায় ভুক্তভোগিরা।

FM/sharif