ম্যারাডোনার ‘হাত দিয়ে গোলের’ বল নিলামে বিক্রি

প্রকাশিত: ১৭-১১-২০২২ ২০:১৯

আপডেট: ১৭-১১-২০২২ ২০:১৯

ক্রীড়া ডেস্ক: দিয়েগো ম্যারাডোনার ‘হ্যান্ড অফ গড’-এর সেই বল বিক্রি হয়ে গেল। ১৯৮৬ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচে দিয়েগো মারাডোনা ওই বল দিয়ে প্রথম গোল করেছিলেন। ইংল্যান্ডে এই বলটি নিলামে ২০ লক্ষ পাউন্ডে বিক্রি হয়েছে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৫ কোটি টাকা। 

বলটির মালিকানা কার কাছে ছিল, এটাও খানিকটা অবাক করার মতো। তিউনিশিয়ান রেফারি আলি বিন নাসের সেদিন বুঝতে পারেননি হাত দিয়ে বল জালে জড়িয়েছেন ম্যারাডোনা। বলের মালিকানা ৩৬ বছর ধরে তারই।

লন্ডনের গ্রাহাম বড অ্যাকশনে দুই মিলিয়ন ভিত্তিমূল্যে নিলামে তোলা হয় বলটি। নাসের আশা প্রকাশ করেছেন, বলের নতুন মালিক এটিকে সবার জন্য উন্মুক্ত রাখবেন। তার কাছে মনে হয়েছে, পৃথিবীর সঙ্গে ম্যারাডোনার স্মৃতিকে ভাগাভাগি করার এটাই সেরা সময়।

প্রয়াত মারাডোনা ওই ম্যাচে যে জার্সি পরে খেলেছিলেন, তা বিক্রি হয়েছে ছ’মাস আগে। তাঁর দাম ওঠে ৯৩ লক্ষ পাউন্ড, যা প্রত্যাশা করা হয়েছিল তার থেকে দ্বিগুণ বেশি। তবে বলের ক্ষেত্রে সেই দাম ধারেকাছেও যায়নি। আর্জেন্টিনা বনাম ইংল্যান্ডের সেই ম্যাচে পুরো ৯০ মিনিট একটি বলেই খেলা হয়। তার অনেক পরে এক ম্যাচে একাধিক বল ব্যবহারের অনুমতি দেয় ফিফা।

সেই সময় ফকল্যান্ড দ্বীপ নিয়ে আর্জেন্টিনা এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে প্রবল ঝামেলা চলছিল। কিন্তু ফুটবল মাঠে মারাডোনার শিল্পের কাছে পেরে ওঠেনি ইংল্যান্ড। প্রথম গোলের ক্ষেত্রে মারাডোনা হেড করতে ওঠার সময় বল তাঁর হাতে লেগে গোলে ঢোকে। ইংরেজ ফুটবলাররা অভিযোগ জানালেও রেফারি কর্ণপাত করেননি। পরে মারাডোনা স্বীকার করেন, বল তাঁর হাতে লেগেছিল।

ঠিক তার পরেই দ্বিতীয় যে গোলটি মারাডোনা করেন, তাঁকে শতাব্দীর সেরা গোল বলা হয়। ইংল্যান্ডের ছ’জন ডিফেন্ডারকে কাটানোর পর গোলকিপার পিটার শিল্টনকে হতবাক করে বল জালে জড়িয়ে দেন।

দীর্ঘ দিন রোগে ভোগার পর ২০২০-র নভেম্বর প্রয়াত হন মারাডোনা। তাঁর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে এখনও তদন্ত চলছে। অভিযোগের আঙুল উঠেছে চিকিৎসকদের দিকে।

 

MNU/Bodiar