অপূর্ব সব স্থাপত্যের নিদর্শন কাতার বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামগুলো

প্রকাশিত: ১৭-১১-২০২২ ২০:৪১

আপডেট: ১৭-১১-২০২২ ২০:৪১

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপের আসর শুরুর অপেক্ষায় মরুর দেশ কাতার। সেখানে পাঁচটি শহরের আটটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে এবারের বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো। অপূর্ব সব স্থাপত্যের নিদর্শন এই স্টেডিয়ামগুলো। যা সেজেছে নানন্দনিক সাজে। এবার জেনে নিন চোখ ধাঁধানো সেই সব স্টেডিয়ামের খবর।

‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’কে বরণ করে নিতে শুরু হয়েছে ক্ষণ গণণা। সেই সাথে প্রিয় দলের খেলা কোন মাঠে হবে, ধারণ ক্ষমতা আর সুযোগ-সুবিধাই বা কেমন, সেসব জানতেও উৎসুক ফুটবল প্রেমিরা।

বিশ্বকাপ ফুটবল হবে কাতারের ৫ শহরের ৮টি স্টেডিয়ামে। তবে, মূল আকর্ষণ ফাইনালের ভেন্যু লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামকে ঘিরে। দোহার ১৫ কিলোমিটার উত্তরের শহর লুসাইলে অবস্থিত স্টেডিয়ামটি। যেটিতে ৮০ হাজারের বেশি দর্শক খেলা উপভোগ করতে পারবেন।

২০শে নভেম্বর বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে আল বাইত স্টেডিয়াম। যা নির্মাণ করা হয়েছে বেদুইন তাবুর আদলে। স্পেন বনাম জার্মানীর মধ্যকার হাই ভোল্টেজ ম্যাচটিসহ গ্র“প পর্বের পাঁচটি, শেষ ১৬ ও কোয়ার্টার ফাইনালের একটি এবং দ্বিতীয় সেমিফাইনাল হবে এ মাঠেই। যা একসাথে উপভোগ করতে পারবেন ৬০ হাজারের বেশি দর্শক।

বিশ্বকাপের একমাত্র সবুজ স্টেডিয়াম আল রাইয়ান শহরের এডুকেশন সিটি। স্টেডিয়ামটির ধারণ ক্ষমতা ৪০ হাজার। গ্র“প পর্বের ৬টি এবং শেষ ১৬ ও কোয়ার্টার ফাইনালের একটি করে ম্যাচ এখানে অনুষ্ঠিত হবে। 

নান্দনিকতায় অপূর্ব দোহা থেকে ১২ কিলোমিটার দূরের আল থুমামা স্টেডিয়ামটি। এই স্টেডিয়ামের জন্য মরুভূমিতে পুরো একটা শহর গড়ে তুলছে কাতার সরকার।

আহমদে বিন আলি স্টেডিয়ামও যেন একখণ্ড নীল চাঁদের ফলি। স্টেডিয়ামের ওপরের ফাঁকা স্থানটি চাইলেই ঢেকে ফেলা যাবে বিশেষ কাচে। ৪০ হাজার আসনের এই স্টেডিয়ামে ম্যাচ হবে সাতটি।

খলিফা স্টেডিয়ামটি কাতারের জাতীয় স্টেডিয়াম। জার্মানি, ইংল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়ার মত দলগুলোর গ্র“প পর্বের খেলা হবে এ মাঠেই। এছাড়া তৃতীয় স্থান নির্ধারনী ম্যাচও হবে আল খলিফা স্টেডিয়ামে।

বিশ্বকাপে নকআউট পর্বের ম্যাচসহ সাতটি খেলা হবে স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ। যদিও বিশ্বকাপের পর এই স্টেডিয়ামটি ভেঙ্গে ফেলা হবে। ব্রাজিল ও আর্জেটিনার মত জনপ্রিয় দলের গ্র“প পর্বের খেলা হবে এই স্টেডিয়ামে।

দোহার ঐতিহ্যবাহী নৌকার আকৃতিতে বানানো আল জানুব স্টেডিয়ামটিও বিশ্বকাপে বিশেষ আলোচনায় এসেছে। এখানে খেলা হবে ৭টি। যা একসাথে উপভোগ করতে পারবেন প্রায় ৪০ হাজার দর্শক।

 

SAI/Bodiar