চীনের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াং আর নেই

প্রকাশিত: ৩০-১১-২০২২ ১৬:১৬

আপডেট: ৩০-১১-২০২২ ১৬:১৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চীনের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াং জেমিন মারা গেছেন। বুধবার (৩০শে নভেম্বর) ৯৬ বছর বয়সে চীনের সাবেক এই নেতা মারা গেছেন বলে দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যমের খবরে জানানো হয়েছে।

চীনের সরকারি সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া বলেছে, বুধবার স্থানীয় সময় বেলা ১২টা ১৩ মিনিটে মারা গেছেন জিয়াং। দীর্ঘদিন ধরে প্রাণঘাতী লিউকেমিয়াসহ একাধিক জটিল রোগে ভোগার পর সাংহাই শহরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি।

চীনের সামরিক বাহিনী, মন্ত্রিসভা ও ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির পক্ষ থেকে একটি চিঠির মাধ্যমে তার মৃত্যুর বিষয়টি জনগণকে জানানো হয়েছে। চিঠিতে তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বলা হয়, কমরেড জিয়াং জেমিনের মৃত্যু আমাদের দল, আমাদের সামরিক বাহিনী এবং সব জাতিগোষ্ঠীর মানুষের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

চিঠিতে আরও বলা হয়, আমাদের প্রিয় কমরেড জিয়াং জেমিন উচ্চ মর্যাদা সম্পন্ন নেতা, মার্সিস্ট, স্ট্যাটসম্যান, সামরিক কৌশলবিদ এবং ক‚টনীতিক ছিলেন এবং বহুল পরীক্ষিত কমিউনিস্ট যোদ্ধা ছিলেন বলেওে জানানো হয়েছে। 

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জিয়াং জেমিনের মৃত্যুতে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান অফিস, সরকারি বিভিন্ন ভবন ও বিশ্বজুড়ে চীনা দূতাবাস ও কনস্যুলেটে চীনের পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে।

রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম সিসিটিভি বলছে, জিয়াংয়ের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া ব্যবস্থাপনা কমিটির এই আদেশ বুধবার থেকে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার তারিখ পর্যন্ত প্রযোজ্য হবে। তবে দেশটির সাবেক এই নেতার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার তারিখ এখনও ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

১৯৮৯ সালে গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের ওপর রক্তাক্ত তিয়ানআনমেন অভিযানের কিছুদিন পর জিয়াংকে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির প্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ওই ঘটনার পর চীনকে পরবর্তী কূটনৈতিক বিচ্ছিন্নতা থেকে মুক্ত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সম্পর্ক মেরামত এবং নজিরবিহীন অর্থনৈতিক উত্থানের তত্ত্বাবধান করেন তিনি।

ইতিহাস সৃষ্টিকারী পরিবর্তনের মাধ্যমে চীনকে দেখেছেন জিয়াং; যার মধ্যে রয়েছে বাজার-ভিত্তিক সংস্কার ব্যবস্থার পুনরুজ্জীবন, ১৯৯৭ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে হংকংয়ের প্রত্যাবর্তন এবং ২০০১ সালে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় (ডব্লিউটিও) বেইজিংয়ের প্রবেশ।

Raz/shimul