শের-ই-বাংলার জন্মভিটার জরাজীর্ণ দশা

প্রকাশিত: ০৬-১২-২০২২ ০৮:৩৫

আপডেট: ০৬-১২-২০২২ ০৯:৩২

ঝালকাঠি সংবাদদা: ঝালকাঠির সাতুরিয়ায় শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হকের জন্মভিটা পড়ে আছে জরাজীর্ণ অবস্থায়। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের আওতাধীন থাকলেও অযত্ন আর অবহেলায় রয়েছে বাড়িটি। এটি শিগগিরই সংস্কারের কোন পরিকল্পনা নেই বলেও জানালেন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। তবে কয়েকবছরের মধ্যেই সংস্কারের আশ্বাস দিলেন। 

শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক, পুরো নাম আবুল কাসেম ফজলুল হক। ১৮৭৩ সালের ২৬শে অক্টোবর ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার সাতুরিয়া গ্রামে মামার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন এই খ্যাতনামা রাজনীতিবিদ। শৈশবের বেশির ভাগ সময় তিনি কাটিয়েছেন মামার বাড়িতেই। ২০১০ সালে শের-ই-বাংলার জন্মস্থান প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের আওতায় নেয়া হয়। ২০১৬ সালে কিছু সংস্কার করা হলেও, এখন জরাজীর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে।

শের-ই-বাংলার স্মৃতি বিজড়িত জন্মস্থান দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে পর্যটকরা আসেন। তবে তারা হতাশ হয়ে ফিরে যান। চুরি হয়ে গেছে এ কে ফজলুল হকের ব্যবহৃত জিনিসপত্র। অবিলম্বে খ্যাতনামা এই রাজনীতিবিদের জন্মভিটা সংস্কারের দাবি জানালেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সৈয়দ মাইনুল হায়দার নিপু।

তবে খুলনা বিভাগের প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের আঞ্চলিক পরিচালক কর্মকর্তা আফরোজা খান মিতা  জানালেন, এই অর্থবছরে শের-ই-বাংলার জন্মভিটা সংস্কারের কোনো পরিকল্পনা নেই। তবে কয়েক বছরের মধ্যে প্রয়োজনীয় সংস্কার করা হবে। এ কে ফজলুল হক ১৯৬২ সালের ২৭শে এপ্রিল ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। 

Sumyia/sharif